আস্থা ভোটে উতরে গেলেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী

ক্ষমতায় ফিরেই অগ্নিপরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী পুষ্প কমল দহল। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, পার্লামেন্টে আস্থা ভোটে জয়ী হয়েছেন তিনি। পার্লামেন্টে ২৭০ জন আইনপ্রণেতার মধ্যে ২৬৮ জনের ভোট পেয়েছেন পুষ্প।

আস্থা ভোটে উতরে গেলেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী

গত মাসের জাতীয় নির্বাচনে কোনো দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় প্রধান বিরোধী দলের সঙ্গে জোট করে নেপালের প্রধানমন্ত্রী হন পুষ্প কমল দহল ওরফে প্রচণ্ড। বেশ জাঁকজমকভাবেই শপথ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সাবেক এই মাওবাদী নেতা এবং  নেপালের তৃতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হওয়া পুষ্প কমল দহলকে শপথ বাক্য পড়ান দেশটির প্রেসিডেন্ট বিদ্যা দেবি ভান্ডারি।

শপথ নেয়ার একমাসও হয়নি, এরইমধ্যে আস্থা ভোটের মুখে পড়তে হলো নেপালের প্রধানমন্ত্রীকে। মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) পার্লামেন্টে এই ভোট হয়। যেখানে বিনা বাধায় উতরে যান পুষ্প কমল। স্থানীয় গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, বিরোধী কেপি ওলি শর্মার দল থেকেই আস্থা ভোটের ডাক দেয়া হয়।

এদিন পার্লামেন্টের ২৭৫ জন আইনপ্রণেতার মধ্যে ভোট দেন ২৭০ জন। এরমধ্যে পুষ্পের পক্ষে ভোট পড়ে ২৬৮টি, আর বিপক্ষে ভোট যায় দুটি। ২৭৫ সদস্যের পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণের জন্য ১৩৮টি ভোটের প্রয়োজন ছিল। আস্থা ভোটের ব্যাপক জয়কে প্রচণ্ডের জন্য নিংসন্দেহে গুরুত্বপূর্ণ মনে করা হচ্ছে।

নেপালের সাবেক রাজতন্ত্রের বিরুদ্ধে এক দশকব্যাপী গেরিলা যুদ্ধে নেতৃত্ব দিয়েছেন পুষ্প কমল দহল। আগামী ২০২৫ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর পদে থাকবেন তিনি। এরপর সমঝোতার ভিত্তিতে বিরোধী জোটের একজন বাকিসময় প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করবেন।